কঠিন কাজ সহজ হওয়ার দোয়ানারীরা নিজের নামের সঙ্গে স্বামীর নাম যুক্ত করতে পারবে?দৃষ্টির নিয়ন্ত্রণ কি ব্যভিচারমুক্ত থাকার উপায়?বেশি বেশি সালাম আদান-প্রদান করবেন কেন?অনুমান করে কথা বলার পর করণীয় কী?
No icon

অন্তর নরম রাখতে যে আমল করবেন

প্রয়োজন পূরণ কিংবা অন্তর নরম হওয়া খুবই জরুরি। কারো কাঙ্ক্ষিত প্রয়োজন পূরণ না হলে কিংবা কারো অন্তর নরম না হলে বিপদ কিংবা আপত্তির সীমা থাকে না। পক্ষান্তরে ভালো মানুষের অন্তর নরম হয়। কোমল থাকে। দয়া-মায়া ও ভালোসার অনুভূতি থাকে। আর এ কারণেই মহান আল্লাহ তাআলা তাদের প্রয়োজন পূরণ করে দেন।

নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অন্তর নরম রাখা এবং প্রয়োজন পূরণ হওয়ার কার্যকরী আমলের কথা বলেছেন। প্রয়োজন পূরণ কিংবা অন্তর নরম রাখার সেই আমল কী?

হাদিসে পাকে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিজেদের প্রয়োজন পূরণ হওয়ার এবং নিজেদের অন্তরকে নরম করার জন্য ইয়াতিমকে ভালোবাসতে বলেছেন। তাদের মাথায় হাত বুলিয়ে দিতে বলেছেন, তাদেরকে খাদ্য দিতে বলেছেন। ফলে মহান আল্লাহ বান্দার প্রয়োজন পূরণ করে দেবেন এবং তাদের অন্তরও নরম হয়ে যাবে। হাদিসে পাকে এসেছে-

নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, তোমরা ইয়াতিমকে কাছে ডাকো (তিনটি কাজ করো; যার ফলে তোমাদের অন্তর নরম হবে এবং প্রয়োজন পূরণ হবে। তাহলো)- তাদের প্রতি আদর-ভালোবাসা দেখানো। তাদের মাথায় ভালোবাসায় হাত বুলিয়ে দেওয়া। তাদের মাঝে খাদ্য বিলিয়ে দেওয়া। (জামে)

ইয়াতিমের প্রতি দয়া দেখাতে; ইয়াতিমের সম্পদ রক্ষায় আল্লাহ তাআলা কঠোর দিকনির্দেশনা দেয়িছেন। ইয়াতিমের সম্পদ নষ্ট করার ক্ষতিও মারাত্মক। সে কারণেই ইয়াতিমের অধিকারের প্রতি লক্ষ্য রাখা জরুরি।

মহান আল্লাহ ইয়াতিমের প্রতি যত্ন নেওয়া ও তাদের প্রতি দায়িত্ব পালন করার প্রতি ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে। এ কারণেই রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মুমিন মুসলমানকে ইয়াতিমের প্রতি যথাযথ দায়িত্ব পালন করার কথা বলেছেন।

যারাই ইয়াতিমের প্রতি যথাযথ দায়িত্ব পালন করবে, তাদের অন্তরই হবে নরম। ইয়াতিমের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ পাবে। আর তাদের প্রয়োজনও পূরণ হবে সহজে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ইয়াতিমের প্রতি যথাযথ দায়িত্ব পালন করার তাওফিক দান করুন। হাদিসের উপর আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।