যে গুণ থাকলে আল্লাহ বান্দাকে ক্ষমা করবেনভারতের প্রাচীনতম মসজিদ চেরুম্যান জুম্মা মসজিদ মুসলমানদের কাছে আল-আকসা বিশ্বের তৃতীয়-পবিত্রতম স্থান আল্লাহর ওপর ভরসা কী?‘কাজা’ নামাজ আদায়ের নিয়ম ও সময়
No icon

ভালো আমলের নিয়ত ও ফজিলত

বিনা আমলে সওয়াব পাওয়া বান্দার জন্য আল্লাহর একান্ত অনুগ্রহ। আমল ভালো হোক আর মন্দ হোক, প্রতিটি কাজের বিনিময়েই রয়েছে প্রাপ্তি। আমল যদি ভালো হয়, ফলাফলও হয় ভালো। আর যদি আমল মন্দ হয় তবে তার প্রাপ্তিও মন্দ। তাই নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, প্রতিটি কাজের ফলাফল নির্ভর করে তার নিয়তের উপর। আমল না করেই সওয়াব লাভের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন-

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর প্রভূর সূত্রে বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন আল্লাহ তাআলা সৎকাজ ও পাপকাজের সীমা চিহ্নিত করে দিয়েছেন এবং সেগুলো বৈশিষ্ট্য স্পষ্টভাবে বিবৃত করেছেন। অতএব যে ব্যক্তি কোনো সৎ কাজের সংকল্প (নিয়ত) ব্যক্ত করে এখনো তা সম্পাদন করতে পারেনি আল্লাহ তার আমলনামায় একটি পূর্ণ নেকি লিপিবদ্ধ করার আদেশ দেন। >আর সংকল্প (নিয়ত) পোষণের পর যদি উক্ত কাজটি সম্পাদন করা হয় তাহলে আল্লাহ তার আমলনামায় দশটি নেকি থেকে শুরু করে সাতশ এমনকি তার চেয়েও কয়েকগুণ বেশি নেকি লিপিবদ্ধ করে দেন। আর যদি সে কোনো পাপ কাজের ইচ্ছা পোষণ করেও তা সম্পাদন না করে তবে আল্লাহ তার বিনিময়ে তার আমলনামায় একটি পূর্ণ নেকি লিপিবদ্ধ করেন। আর যদি ইচ্ছা পোষণের পর সেই খারাপ কাজটি সে করেই ফেলে তাহলে আল্লাহ তাআলা তার আমালনামায় শুধু একটি পাপই লিখে রাখেন। (বুখারি মুসলিম)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ভালো কাজ করার পাশাপাশি সব সময় ভালো কাজ করার মানসিকতা পোষণ করার তাওফিক দান করুন। সবসময় ভালো কাজের নিয়ত করার পাশাপাশি তা বাস্তবায়ন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।