কঠিন রোগ ও পরিস্থিতিতে আল্লাহর কাছে ধরনানেক আমল শান্তিময় জীবন দান করেআল্লাহ যেসব নেককার বান্দাকে ভালোবাসেনসব কাজে আল্লাহর ওপর ভরসা করার ফজিলতফজরের নামাজের সুন্নাত আমল
No icon

বর্তমান ও ভবিষ্যৎকে সুন্দর করুন

এক. আপনি আবার সেই পথে যাওয়ার পরিকল্পনা না করলে কখনোই পেছনে ফিরে তাকাবেন না। অতীত থেকে শিক্ষা নিন এবং বর্তমান ও ভবিষ্যৎকে সুন্দর করার লক্ষ্য সামনে রাখুন। এগিয়ে যান সামনে এবং বেঁচে থাকুন।
পুনশ্চ
এক. আপনি কি প্রতিহিংসাপ্রবণ? আপনি ঈর্ষা ও হিংসায় ভরা হৃদয়কে বহন করছেন। এ জাতীয় বৈশিষ্ট্য আপনাকে খুব বেশিদূর এগিয়ে নিতে পারবে না। এটি আপনার জীবনের অবসান ঘটাবে দুর্ভোগ ও বিভ্রান্তির মধ্য দিয়ে। অন্যের জন্য সুখী হোন। তাদের সাফল্যে অভিনন্দন জানান এবং ইতিবাচক শক্তির ব্যাপক বিস্তার ঘটান! এসব একদিন আপনার কাছেই ফিরে আসবে!
দুই. লোকেরা কী বলে বা কী ভাবে তা নিয়ে চিন্তা করবেন না। শেষ পর্যন্ত ফলাফলই কথা বলে। এগিয়ে চলুন এবং আপনার যথাসাধ্য চেষ্টা করুন। আপনি যখন হ-য-ব-র-ল অবস্থায় পড়েন, আপনি সর্বশক্তিমানের কাছ থেকে দূরে সরে যাবেন না। আপনি তাঁর দিকেই দৌড়ান! তিনি আপনাকে কখনো পরিত্যাগ করবেন না। এমনকি যখন সবাই আপনাকে ছেড়ে চলে যায়, তিনি তখনো আপনার সাথেই থাকেন!
তিন. আপনি বিকাশের জন্য যে ধরনের মনোযোগ দিন না কেন তার গুরুত্ব রয়েছে। সমালোচক ও বিদ্বেষীদের নিয়ে চিন্তা করবেন না। আপনার এবং আপনার জীবনের জন্য আপনার স্রষ্টা এবং তাঁর পরিকল্পনাগুলোতে মনোনিবেশ করুন। যারা আপনাকে হতাশ করার চেষ্টা করছে, তাদের সম্পর্কে ভাববেন না। আপনার কাজ অন্যকে সম্মান করা এবং কাউকে আঘাত করা নয়। সাধ্যমতো চেষ্টা করুন। বাকি কাজ তিনি করবেন!